করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা বেড়ে ১,৯৪৩

দেশে করোনাভাইরাসে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত আক্রান্ত পুলিশ সদস্যের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৯৪৩ জনে দাঁড়িয়েছে।

দেশে আজ মোট করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪১ জন।

আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে শুধুমাত্র ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ৯০৯ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন বলে পুলিশ সদরপ্তর সূত্র ইউএনবিকে জানিয়েছে।

এছাড়া, বাহিনীর সাতজন সদস্য ভাইরাসের শিকার হয়ে মারা গেছেন বলে সূত্র উল্লেখ করেছে।

সূত্র আরও জানায়, বর্তমানে ৩ হাজার ৯১ পুলিশ সদস্য কোয়ারেন্টাইনে আছেন এবং ১ হাজার ১৫২ জন বিভিন্ন হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসা নিচ্ছেন। সেই সাথে ২৯৮ পুলিশ সদস্য পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ, সশস্ত্র বাহিনী, র‌্যাব ও অন্যান্য সংস্থা যৌথভাবে কাজ করছে।

কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে সোমবার পর্যন্ত ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) সশস্ত্র বাহিনীতে কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত মোট ৩৪৫ জন সামরিক ও বেসামরিক সদস্য এবং তাদের পরিবারের সদস্য ভর্তি হয়েছেন।

তাদের মধ্যে ৮৮ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন, ছয়জন মারা গেছেন এবং ভর্তি থাকা অপর সব রোগী সুস্থ রয়েছেন বলে আন্তবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এদিকে, করোনাভাইরাস আক্রান্ত বাহিনীর সদস্যদের চিকিৎসার জন্য রাজধানীর ২৫০ শয্যার ইমপালস হাসপাতাল ভাড়া করেছে বাংলাদেশ পুলিশ।

দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় সরকার ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ ছুটির মেয়াদ ৩০ মে পর্যন্ত বাড়িয়েছে। কিন্তু রমজান ও ঈদুল ফিতরের কথা বিবেচনা করে কিছু ক্ষেত্রে মানুষের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে।

দেশে এখন পর্যন্ত ১৮ হাজার ৮৬৩ জনের করোনা শনাক্ত এবং ২৮৩ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।