হোসেনপুরের করোনা উপসর্গ নিয়ে মাদরাসা শিক্ষার্থী মারা গেছে।। ইফার স্বেচ্ছাসেবক টিমের দাফন

আমিনুল হক সাদী

করোনা উপসর্গ নিয়ে বিশোরগঞ্জের হোসেনপুরে দক্ষিণ পুমদী এলাকার শফিকুল ইসলামের পুত্র ডাহরা গোলপুকুর পাড় মাদ্রাসার শিক্ষার্থী হৃদয় মিয়া (১৬) মৃত্যু হয়েছে। সরকারী প্রটোকল অনুযায়ী ইসলামিক ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক টিম শনিবার সকালে তাঁর লাশ দাফন করা হয়েছে। সে করোনা উপসর্গ নিয়ে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শুক্রবার দিবাগত রাত্রে চিকিৎসাধীন ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।
কিশোরগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মুজিবুর রহমান জানান, গতকাল তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, এখনও রিপোর্ট আসেনি। তবে প্রটোকল অনুযায়ী শনিবার সকালে তাঁর লাশ দাফন করা হয়েছে।
কিশোরগঞ্জ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক মোহাম্মদ ফারুক আহামেদ জানিয়েছেন, শনিবার সকালে তার কাফন, জানাযা ও দাফন উপ‌জেলা প্রশাসন, উপ‌জেলা পু‌লিশ, উপ‌জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সহ‌যো‌গিতায় ইসলা‌মিক ফাউ‌ন্ডেশন উপ‌জেলা পর্যায়ে গ‌ঠিত স্বেচ্ছা‌সেবী টিম কর্তৃক সম্পন্ন হয়েছে।
হোসেনপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওয়াহিদুজ্জামান জানান, করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির কবর খনন করার জন্য স্থানীয় কেউ এগিয়ে আসেনি। বৃষ্টি উপেক্ষা করে নিজের দায়িত্ববোধ থেকে একজনকে ডেকে এনে কবর খনন করাসহ হোসেনপুর থানা পুলিশ ও উপজেলা পর্যায়ে দাফন কাফন টীমের সহায়তায় লাশ দাফন করা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা কেন জানি দিনদিন অমানবিক হয়ে যাচ্ছি!এমন মৃত্যু যেন কারো না হয় যেখানে মানবিকতা হারিয়ে যায়! যেখানে পরিবারের কেউ এগিয়ে আসতেও ভয় পায়। আল্লাহ আমাদের রক্ষা করুন। মানসিক শক্তি দান করুন।