করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাড়ির বয়স্ক লোকজনকে কিভাবে নিরাপদে রাখবেন?

COVID 19 আতংকে আছে সারা বিশ্ব। USA, Italy সহ অনেক দেশেই শুরু হয়েছে মৃত্যুর মিছিল। সামাজিক বিচ্ছিন্নকরণ যথাযথভাবে পালন করতে না পারায়, করোনা ভাইরাসের সহজ টার্গেট হচ্ছেন আমাদের বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যাক্তিরা। এতে মৃত্যুর মিছিল আরো দীর্ঘতর হবে।বয়োজ্যেষ্ঠরা কী করা উচিৎ  :-

১. মসজিদে না গিয়ে বাসায় দু-তিনজন মিলে জামাতে নামাজ পড়ুন।

২. ঘরের বাইরে যাবেন না, ছাদে হাঁটতে যেতে পারেন (রেলিং ধরবেন না, লিফটের বাটন চাপবেন না)। ফিরে এসে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।

৩. নাতি-নাতনিদের সঙ্গে দূরত্ব রেখে (অন্তত চার ফুট) গল্প করুন। শিশুরা লক্ষণ ছাড়া অথবা মৃদু লক্ষণযুক্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে।

৪. বাড়ির বাইরে যান অথবা বাইরে থেকে আসেন (গাড়িচালক, গৃহকর্মী) এমন ব্যক্তিদের সঙ্গেও নিরাপদ দূরত্ব রেখে কাজ করুন।

৫. নিজ হাতে নগদ টাকা লেনদেন যথাসম্ভব পরিহার করুন (করোনাভাইরাস কোনো স্থানে ৯ দিন পর্যন্ত থাকতে পারে অর্থাৎ বিগত ৯ দিন যত জন টাকা লেনদেন করেছে, তারা এই টাকায় করোনাভাইরাস সংক্রমিত করতে পারে)।

৬. টিভির রিমোট ব্যবহারের আগে স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করা অথবা কাউকে ধরতে না দেওয়া অথবা অন্যকে দিয়ে চালানো।

৭. খাবার আগে ভালোভাবে সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করা (ভুলে যেতে পারেন, তাই অন্য কেউ মনে করিয়ে দেবেন)।

৮. অন্য বাসায় থাকেন, এমন কারো সঙ্গে সাক্ষাৎ না করা (এমনকি ছেলে-মেয়ে পর্যন্ত)। অবশ্য কারো সঙ্গে যোগাযোগ না হলে একাকিত্ব অথবা বিষণ্নতা পেয়ে বসতে পারে। সে জন্য একান্তই দেখা করতে হলে নিরাপদ দূরত্ব রাখুন এবং মাস্ক পরিধান করুন। মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটারে সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করুন ভিডিও চ্যাট/ ফোন করার জন্য।

৯. নিজ হাতে খাবার ও ওষুধ খান।

১০. বইপত্র পড়ুন, কুরআন শরীফ পড়ুন, পুরনো দিনের সিনেমা দেখুন, গান শুনুন।

১১. বিদেশ থেকে কেউ এলে ১৪ দিনের মধ্যে তার সঙ্গে দেখা করবেন না এবং তার দেওয়া জিনিস ব্যবহার করবেন না।

ডাঃ মুহাম্মাদ আবিদুর রহমান ভূঞা

এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য),  এমডি (হেপাটোলজী)     আবাসিক চিকিৎসক মেডিসিন, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কিশোরগঞ্জ