হিট মুভি ‘যদি কিন্তু তবুও’র নুসরাত ফারিয়ার গান জিফাইভে মুক্তি

সিনেমা মুক্তির পর ভক্তরা এখন উপভোগ করতে পারবেন ইশান মিত্রের সাথে নুসরাতের কণ্ঠে নতুন রোমান্টিক গান ‘কাটে না কাটে না।’

দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম জিফাইভ গ্লোবাল ‘কাটে না কাটে না’ শিরোনামে একটি রোমান্টিক গান প্রকাশ করেছে। সদ্য মুক্তি পাওয়া সফল জিফাইভ অরিজিনাল ‘যদি কিন্তু তবুও’ সিনেমার গান এটি। সিনেমার মূল চরিত্র আবির এবং প্রীতি’র কয়েকটি সুন্দর মুহুর্ত ধারণ করা হয়েছে এ গানটিতে। আবির এবং প্রীতির ভূমিকায় অভিনয় করেছেন যথাক্রমে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব এবং নুসরাত ফারিয়া। গানটি গেয়েছেন ইশান মিত্র ও নুসরাত ফারিয়া। লিখেছেন সোমেশ্বর অলি এবং সুর দিয়েছেন আম্লান এ চক্রবর্তী।
বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী নুসরাত আগে মিউজিক ভিডিওতে কণ্ঠ দিলেও এই প্রথম কোন সিনেমার জন্য গাইলেন। গানটি প্রকাশ উপলক্ষ্যে নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘যদি কিন্তু তবুও’র জন্য যে ভালোবাসা আমরা পেয়েছি তাতে আমি অভিভূত। এই গানটি গাইতে পারা ছিল আমার জন্য একটি বড় পাওয়া। আসলেই এটি চমৎকার একটি গান এবং আশা করি দর্শকরা সিনেমাটি যেমন পছন্দ করেছেন তেমনি আমার গাওয়া এই গানটিও পছন্দ করবেন।’

জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত পরিচালক শিহাব শাহীন পরিচালিত ‘যদি কিন্তু তবুও’ সিনেমাটি এক শহুরে জুটি আবির ও প্রীতির কাহিনী ঘিরে আবর্তিত। নানা ঘটন-অঘটন এবং বিচিত্র সব অনুভূতির নাটকীয়তার শেষে আবির ও প্রীতি বুঝতে পারে তারা একে অপরকে ভালবাসে। এ সিনেমায় অপূর্ব এবং ফারিয়া প্রথমবারের মতো পর্দায় জুটি হিসেবে হাজির হয়েছেন। আরও অভিনয় করেছেন ঢালিউড অভিনেতা তারিক আনাম খান, সাবেরি আলম, নাজিবা বাশার, আমান রেজা এবং ইমতু রাতিশ।

বাংলাদেশের দর্শকরা জিফাইভ-এ বিনামূল্যে দেখতে পাচ্ছেন ‘যদি কিন্তু তবুও’। গুগল প্লে­স্টোর অথবা আইওএস অ্যাপ স্টোর থেকে গ্রাহকরা জি ফাইভ অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন। সামস্যাং স্মার্ট টিভি, অ্যাপল টিভি, অ্যান্ড্রয়েড টিভি ও অ্যামাজন ফায়ার টিভিতেও রয়েছে অ্যাপটি।

জিফাইভ বিশ্ব মিডিয়া ও বিনোদন জগতের অন্যতম প্রতিষ্ঠান জি এন্টারটেনমেন্ট এন্টারপ্রাইজেস লিমিটেড (জিল) পরিচালিত একটি ডিজিটাল এন্টারটেইনমেন্ট প্ল্যাটফর্ম। ২০১৮ সালের অক্টোবরে ১৯০টির বেশি দেশে কার্যক্রম শুরু করে জিফাইভ। হিন্দি, ইংরেজি, বাংলা, মালয়ালাম, তামিল, তেলেগু, কন্নাডা, মারাঠি, ওড়িয়া, ভোজপুরি, গুজরাটি ও পাঞ্জাবি এবং ছয়টি আন্তর্জাতিক ভাষার- মালয়, থাই, বাহাসা, জার্মান, রাশিয়ান ও আরবী- কনটেন্ট রয়েছে প্ল্যাটফর্মটিতে। জিফাইভ-এ রয়েছে এক লাখ ত্রিশ হাজার ঘণ্টার বেশি অন ডিমান্ড কনটেন্ট এবং ৪৫টি লাইভ টিভি চ্যানেল। জিফাইভ-এর অনন্য ফিচারগুলোর মধ্যে রয়েছে ১৬টি নেভিগেশনাল ল্যাঙ্গুয়েজ, কনটেন্ট ডাউনলোডের সুযোগ, নিরবিচ্ছিন্ন ভিডিও দেখা ও ভয়েস সার্চের সুবিধা।

Source:Bd Pratidin

%d bloggers like this: