বাউফলে ট্যাগ অফিসার ও চেয়ারম্যানদের যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দিলেন ডিএলআরসি জামীল

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) এর প্রভাবে বিপর্যস্ত মানুষের মাঝে চলমান ত্রাণ কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলায় ট্যাগ অফিসার ও চেয়ারম্যানদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ০৫ মে ২০২০ মঙ্গলবার সকাল ১১.৩০ টায়  উপজেলা পরিষদের সম্মেলেনকক্ষে এ মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল বিভাগের উপ-ভূমি সংস্কার কমিশনার তরফদার মো: আক্তার জামীল।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, একজন ছাত্র সে যে সাবজেক্টেরই হোক না কেন তার পড়াশুনার পিছনে রাষ্ট্রের কিন্তু প্রচুর অর্থের ব্যয় হয়। সরকারি চাকুরিতে যোগদানের সময় আমরা সকলেই শপথ নিয়েছি জনগণের সেবা করার। সেখান হতে পিছু ফেরার সুযোগ নেই। নিজ স্বার্থে কাজে ফাঁকি দিয়ে স্বেচ্ছায় গৃহান্তরীণ থাকা রাষ্ট্রের সাথে এক ধরণের বিশ্বাসঘাতকতা। তিনি আরও বলেন,  ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রাণ বিসর্জন দিয়েছেন দেশের জন্য। সেখানে তাদের ব্যক্তিগত লাভ বা ক্ষতির কোনো হিসেব ছিলো না। আপনাদের সকলের জন্যতো মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন। প্রণোদনা ছাড়া কি আমরা জীবাণু যুদ্ধে যাবো না?  তিনি বলেন প্রত্যেক ইউনিয়নে ট্যাগ অফিসার নিয়োগ করে তাদের দায়িত্ব নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। এরপরও ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম হওয়ার কথা নয়। ট্যাগ অফিসারদের কেহ দায়িত্বে অবহেলা করলে কিংবা ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম যথাযথভাবে বাস্তবায়নে কারও গাফিলতি পরিলক্ষিত হলে তার দায়-দায়িত্ব তাকেই নিতে হবে। তেমনিভাবে জনপ্রতিনিধিগণও জনগণের সেবা করার আশ্বাস দিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।  তাদেরকেও সততা বজায় রেখে বিপদের সময় জনগণের পাশে থাকতে হবে। এছাড়া মতিবিনময় সভায় বাউফল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালেব হাওলাদারসহ ১৫ টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ট্যাগ অফিসারবৃন্দ অালোচনায় অংশ নেন।
উল্লেখ্য, বাউফল উপজেলায় মোট ১৫ জন বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তা এক একেকটি ইউনিয়ন ও একজন কর্মকর্তা একটি ট্যাগ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।