অ*নৈতিক কাজের সাথে জড়িত থাকায় বাংলাদেশে পাঠানো হলো কুয়েত প্রবাসীকে

ডেস্ক রিপোর্ট: মিজান আল রহমান নামে এক বাংলাদেশীর বিরোদ্ধে বিভিন্ন অ নৈতিক কাজের অভিযোগ থাকায় কুয়েত থেকে বাংলাদেশে পাঠিয়েছে কুয়েত। বাংলাদেশ দূতাবাসের অভিযোগ তার কর্মকাণ্ডে কুয়েতে বাংলাদেশের ভাব মূর্তি বি নষ্ট হচ্ছিল।

নারী সংশ্লিষ্ট অশ্লী*লতাসহ বেশকিছু অ সামাজিক ও অ নৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভি যোগে গত ১০ অক্টোবর কুয়েতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মিজান আল-রহমানকে গ্রে প্তার করে এবং গত বৃহস্পতিবার তাকে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

কুয়েত দূতাবাসের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রায় দশ মাস আগে কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাস ভাঙ চুর ও শ্রমিক বিদ্রোহে মিজানের সম্পৃক্ত তা ছিল। এ ছাড়াও কুয়েতের ভিসা ব্যবসায়ী দালা*লচক্র ও বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসায়ীদের সঙ্গেও মিজানের সখ্য ছিল বলে দূতাবাসের বিবৃতিতে বলা হয়।

অ নৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভি যোগে মিজানের গ্রে প্তার এবং বাংলাদেশে পাঠানোর বিষয়টি কুয়েত দূতাবাসের কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান নিশ্চিত করেছেন।

দেশটির বাংলাদেশ দূতাবাসের জ্যেষ্ঠ এ কর্মকর্তা জানান, মিজানের নানা অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার সব প্রমাণাদি দূতাবাসের হাতে রয়েছে।

অপ রাধ থেকে বিরত থেকে, দেশটিতে বাংলাদেশের শ্রম বাজারের ভাব মূর্তি তুলে ধরতে, প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দুতাবাসের দূতালয় প্রধান ও কাউন্সিলর মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান। এ ছাড়াও মিজানের দেওয়া স্বীকা রোক্তিতে চাঞ্চল্য কর ত থ্য রয়েছে বলে কুয়েত প্রশাসনের বরাত দিয়ে জানান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান। সুত্র: এনটিভি