রাজধানীতে দুই নারীর অস্বাভাবিক মৃত্যু

রাজধানীর মতিঝিল থানাধীন ফকিরাপুলের একটি হোটেল থেকে সালমা নামের (১৯) এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার রাতে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য নিহত সালমার মরদেহ রাখা হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে। প্রথম আলোকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া।

মতিঝিল থানার এসআই সৈয়দ আলী প্রথম আলোকে বলেন, সালমা নামের ওই তরুণীর মৃত্যু রহস্য উদ্‌ঘাটন করা হচ্ছে।

এ দিকে রাজধানীর কদমতলী থানাধীন রায়েরবাগ এলাকা থেকে এক কিশোরীর (১৬) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার রাত সাড়ে ৯টার পর তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

কিশোরীর নাম তাসমিম খাতুন। সে শনিরআখড়া বর্ণমালা স্কুলের শিক্ষার্থী। এবার সে এসএসসি পরীক্ষার্থী। ময়নাতদন্তের জন্য তাঁর মরদেহ রাখা হয়েছে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে।

নিহত তাসমিমের বাবা মোহাম্মদ তুষার প্রথম আলোকে বলেন, ঠিকমতো লেখাপড়া না করে মুঠোফোনে সময় কাটানোয় বকাঝকা করার জের ধরে রোববার রাতে তাঁর মেয়ে আত্মহত্যা করে। দরজা বন্ধ করে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। পরে তাকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাসমিমকে মৃত ঘোষণা করেন।

Source: Prothomalo

%d bloggers like this: