মৌলভীবাজারে করোনা রোগী সাত হাজার ছাড়াল, শনাক্তের হার কমেছে

মৌলভীবাজারে করোনায় সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা সাত হাজার ছাড়িয়েছে। প্রায় ১৭ মাসে রোগীর সংখ্যা এই পর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে। আজ রোববার জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের দৈনিক করোনাবিষয়ক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানা যায়।

তবে রোগী বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলেও শনাক্তের হার এখন কিছুটা কমতির দিকে। গত চার দিন নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্ত রোগী ২৩-২৮ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করেছে। এর আগে প্রায় এক মাস ধরে শনাক্তের হার ছিল ৩০-৫০।জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার সকাল আটটা থেকে আজ রোববার সকাল আটটা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে মৌলভীবাজারের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে আরও ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২১২টি। শনাক্তের হার ২৪ দশমিক ৫। এর মধ্যে মৌলভীবাজার জেনারেল হাসপাতালে নমুনা প্রদানকারীদের মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ২৭ জনের, শ্রীমঙ্গলে ১ জনের, কমলগঞ্জে ৩ জনের এবং কুলাউড়ায় ২১ জনের। এই সময়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৩৩ জন। মারা গেছেন ১ জন।

রোগীর সংখ্যা বাড়লেও কিছুদিন থেকে শনাক্ত রোগীর হার কিছুটা কমতির দিকে। ১২ আগস্ট শনাক্তের হার ২৮ দশমিক ২ শতাংশ, ১৩ আগস্ট ২৩ দশমিক ৪ শতাংশ এবং ১৪ আগস্ট ২৬ শতাংশ। এর আগে গত এক মাস ধরে শনাক্তের হার ছিল ৩০ শতাংশের ওপরে। কখনো তা ৫০ শতাংশের ওপরেও উঠেছে।

জেলা সিভিল সার্জন চৌধুরী জালাল উদ্দিন মুর্শেদ আজ রোববার প্রথম আলোকে বলেন, এখন রোগী শনাক্তের হার কিছুটা কমতির দিকে। নমুনা পরীক্ষা কমেনি। সারা দেশের মতো এখানেও শনাক্ত রোগী কমছে। ধারণা করা হচ্ছে, ৮০ শতাংশ মানুষই আক্রান্ত হয়ে গেছেন। মানুষের ইমিউনিটি তৈরি হয়েছে।

%d bloggers like this: