টাইলসের গুঁড়া, বালু ও অ্যাসিড দিয়ে সার তৈরি!

যশোর সদর উপজেলায় একটি কারখানায় কাঠ ও টাইলসের গুঁড়া, বালু, রং ও অ্যাসিড দিয়ে তৈরি করা হচ্ছিল টিএসপি (ট্রিপল সুপার ফসফেট), দস্তা সার ও কীটনাশক। খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে অভিযান চালিয়ে প্রায় ১০০ মেট্রিক টন ভেজাল সার ও কীটনাশক জব্দ করেন।

ভেজাল সার ও কীটনাশক তৈরি এবং বাজারজাতকরণের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত কারখানার মালিক সোহানুর রহমান ওরফে শিহাবকে (২৪) ৬ মাসের কারাদণ্ডের পাশাপাশি ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন।যশোর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মুনিম লিংকন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, যশোর সদরের ঘুরুলিয়ায় সানওভার অ্যাগ্রো কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি নামের ওই কারখানায় নকল টিএসপি, দস্তার সার ও কীটনাশক তৈরি এবং বিপণন করা হচ্ছিল। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে চারটা থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন।

সন্ধ্যা সাতটার দিকে অভিযান শেষ হয়। এ সময় আদালত দেখতে পান, সেখানে কাঠ ও টাইলসের গুঁড়া, সিলেট স্যান্ড, রং ও অ্যাসিড দিয়ে নকল টিএসপি, দস্তা সার ও কীটনাশক ফুরাডান তৈরি করা হচ্ছে।

ইউএনও এস এম মুনিম বলেন, এসব সার ও কীটনাশক জমি ও ফসলের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। এ সময় কারখানার মালিক সোহানুর রহমানকে ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

রাত সাড়ে নয়টায় অভিযানে থাকা সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শেখ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এখন পর্যন্ত ওই কারখানা থেকে প্রায় ১০০ টন নকল টিএসপি, দস্তা সার ও কীটনাশক জব্দ করা হয়েছে। জব্দতালিকা তৈরির কাজ চলছে। ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে এসব মালামাল এখান থেকে সরিয়ে বিনষ্ট করা হবে। কারখানা সিলগালা করে দেওয়া হবে।

Source: Prothomalo

%d bloggers like this: