ইউরোপিয়ান ফুটবলে হাতেখড়ি

আর কদিন পরই শুরু হচ্ছে ইউরোপিয়ান ফুটবল। ইউরো আর কোপার উত্তেজনার পর একটু বিরতি ছিল ফুটবলে। ৮ আগস্ট ফ্রান্সের লিগ ওয়ান দিয়ে আবার শুরু হবে ফুটবল উৎসব। ১৪ আগস্ট থেকে শুরু হবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, স্প্যানিশ লা লিগা এবং জার্মান বুন্দেসলিগা। আর ইতালিয়ান সিরি ‘আ’ শুরু হবে ২২ আগস্ট থেকে। ফুটবলভক্ত হলে তোমার মধ্যে এখনই উত্তেজনা শুরু হয়ে যাওয়ার কথা।

তবে ইউরোপিয়ান ফুটবল নিয়ে দ্বিধায় ভোগে অনেকেই। কোনটা কোন টুর্নামেন্ট, কোন দল কোথায় খেলছে, তা নিয়ে ঝামেলায় পড়ে যাওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। বিশেষ করে যারা সবেমাত্র ইউরোপের ফুটবল নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি শুরু করেছে, তাদের কাছে একটু জটিল লাগতেই পারে। তবে চিন্তা নেই। ইউরোপিয়ান ফুটবলে হাতেখড়ি নাহয় এই মৌসুম থেকেই শুরু হোক। তার আগে প্রাথমিক ধারণাটা নিয়ে নেওয়া দরকার। আজ থাকছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের কাপ সমাচার। প্রতি মৌসুমে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টগুলোর ধরন, নিয়ম, কীভাবে খেলা হয়—সবকিছুই বলার চেষ্টা করব এ লেখায়।

ইউরোপিয়ান ফুটবলে হাতেখড়ি

লিগ

ইউরোপিয়ান ফুটবলে নিজ নিজ দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শিরোপা হলো লিগ শিরোপা। লিগের জন্য মূলত লড়াই করে ২০টি দল। প্রত্যেকে প্রত্যেকের বিপক্ষে পুরো বছরে মুখোমুখি হয় দুইবার। একবার নিজেদের মাটিতে, অন্যবার প্রতিপক্ষের মাটিতে। ২০ দল ২০ দলের মুখোমুখি হয়ে মৌসুম শেষ করে ৩৮ ম্যাচে। এই ৩৮ ম্যাচ শেষে সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট পাওয়া দল হয় চ্যাম্পিয়ন। আর যদি দুই দলের পয়েন্ট সমান থাকে, তবে দেখা হয় কাদের গোল ব্যবধান (মোট গোল দান ও মোট গোল হজম) বেশি। শুধু স্প্যানিশ লা লিগা ও ইতালিয়ান সিরি ‘আ’য় দেখা হয় হেড টু হেড। অর্থাৎ দুই দলের মুখোমুখিতে কাদের জয় বেশি। জয় সমান হলে দেখা হয় কাদের গোল বেশি। গোলও সমান হলে ফেরত যাওয়া হয় আগের নিয়মে।

৩৮ ম্যাচ শেষে তালিকায় সবচেয়ে নিচে থাকা ৩টি দল হয় অবনমিত বা রেলিগেটেড। অর্থাৎ তারা চলে যায় পরের ডিভিশনে। ইউরোপিয়ান ফুটবলে প্রতিটি দেশেই তাদের লিগের কয়েকটি স্তর থাকে। প্রথম ডিভিশন থেকে দ্বিতীয় ডিভিশনে নেমে যাওয়া ৩ দলের শূন্যস্থান পূরণ করতে আসে দ্বিতীয় ডিভিশনের শীর্ষে থাকা ৩ দল। এভাবেই ইউরোপিয়ান ফুটবলের শীর্ষ লিগগুলো পরিচালিত হয়।

শীর্ষ লিগগুলোর মধ্যে ব্যতিক্রম শুধু জার্মানির বুন্দেসলিগা। তাদের লিগে মোট ১৮টি দল, ফলে ম্যাচ হয় ৩৬টি। বাদবাকি সবকিছু চলে একই নিয়মে।

ইউরোপিয়ান ফুটবলে হাতেখড়ি

লিগ কাপ

লিগের গল্প তো বুঝলে। এবার আসা যাক লিগ কাপের গল্পে। একটু আগে তোমাদের ডিভিশন পদ্ধতির হিসাব বললাম না? লিগ কাপের খেলা হয় সেখান থেকেই। ইংল্যান্ডের কথাই বলি। ইংল্যান্ডে এ রকম মোট ডিভিশন আছে ৯টি। ৯ ডিভিশনে ক্লাবের সংখ্যা মোট ৭৮৪। লিগ কাপে খেলার সুযোগ হয় প্রতিটি দলের। নক-আউট পদ্ধতিতে লটারির মাধ্যমে নির্ণয় করা হয় কে মুখোমুখি হবে কার। ইংলিশ লিগ কাপকে বলা হয় এফএ কাপ। এফএ কাপ হলো বিশ্বের অন্যতম পুরোনো টুর্নামেন্ট। পুরো নাম ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন কাপ, যা চলছে ১৮৭১ সাল থেকে প্রতিবছর।

%d bloggers like this: