৬ মাসে প্রায় ৩২ কোটি ডোজ টিকা বিক্রি অ্যাস্ট্রাজেনেকার

চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে (জানুয়ারি-জুন) বিশ্বজুড়ে ৩১ কোটি ৯০ লাখ ডোজ করোনার টিকা বিক্রি করেছে ব্রিটিশ ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকা। করোনা ঠেকাতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে এই টিকা উদ্ভাবন করে অ্যাস্ট্রাজেনেকা। করোনার টিকা বিক্রি করে প্রতিষ্ঠানটির আয় দাঁড়িয়েছে ১০০ কোটি ইউরো (১২০ কোটি ডলার)। আজ বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে শুধু ইউরোপের বাজারে করোনার টিকা বিক্রি করে ৫৭ কোটি ২০ লাখ ডলার আয় করেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।
যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের অনেক দেশে গণটিকাদান কার্যক্রম এগিয়ে নিতে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত করোনার টিকা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। কোভিশিল্ড ও ভ্যাক্সজেভরিয়া—এই দুটো নামে দেশে দেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকা বিক্রি হচ্ছে।প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্যাসকেল সোরিয়ত বলেন, ‘কোভিড-১৯ টিকা (ভ্যাক্সজেভরিয়া) বিক্রিতে আমরা নাটকীয় উন্নতি করেছি। এখন পর্যন্ত অংশীদারদের সঙ্গে মিলিয়ে বিশ্বের ১৭০টির বেশি দেশে এক বিলিয়ন করোনার টিকা পাঠানো হয়েছে।’ভারতে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনার টিকা স্থানীয়ভাবে উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। কোভিশিল্ড নামের এই টিকা উৎপাদিত হচ্ছে সেরামের পুনের কারখানায়। অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণের পর বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে কোভিশিল্ড রপ্তানি শুরু করেছিল সেরাম। তবে ভারতে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হানার পর থেকে এই টিকা রপ্তানি বন্ধ রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি।

Source: Prothomalo

%d bloggers like this: