নাটোরের গুরুদাসপুরে বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেল স্কুল ছাত্রী তানিয়া

নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের গুরুদাসপুরে উপজেলার দাদুয়া গ্রামের বাল্য বিবাহের হাত থেকে রক্ষা পেল তানিয়া খাতুন (১৬) নামে এস এস সি’র সদ্যসমাপ্ত পরীক্ষার্থী। এলাকার সচেতন নাগরিক মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জাতীয় হেল্প লাইন ১০৯ নাম্বারে ফোন করলে গুরুদাসপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনির হোসেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের নির্দেশে এই বিয়ে বন্ধ করে দেন। রবিবার পাশ^বর্তী বড়াইগ্রাম উপজেলার ভরট গ্রামের সেলিম হোসেনের ছেলে নাজমুল হোসেন সজিবের সাথে তানিয়ার বিয়ের কথা ছিল।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মনির হোসেন জানান, উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়নের দাদুয়া গ্রামের আবু তালেবের মেয়ে ও ধারাবারিষা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সদ্যসমাপ্ত এস এস সি”র পরীক্ষার্থী। তানিয়া খাতুনের বিয়ের খবর মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের জাতীয় হেল্প লাইন থেকে শুনার সাথে সাথে পুলিশ পাঠিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দিয়ে তাৎক্ষণিক মেয়ের চাচা আব্দুল করিম ও ছাত্রী তানিয়াকে উপজেলা কার্যালয়ে ডেকে আনার পর বাল্য বিবাহ না দেওয়ার শর্তে মুচলেকা নেয়া হয়।#