রাণীনগরে বিধবাকে জবাই করে হত্যা ,পুত্র-পুত্রবধুসহ আটক -৩

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর রাণীনগরে ফরিদা বেওয়া (৫৫) নামের এক বিধবাকে জবাই করে হত্যা করেছে। এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুত্র-পুত্রবধুসহ ৩ জনকে আটক করেছে থানাপুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার রাতে উপজেলার পারইল বিশিয়া নাপিতপাড়া গ্রামে। বিধবা ফরিদা ওই গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী। এঘটনাটি পূর্ব শত্রুতার জ্বের ধরে ঘটেছে নাকি পুত্রবধুর পরকিয়ার কারণে এ নির্মম হত্যা কান্ড তা ক্ষতিয়ে দেখছে পুলিশ । স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে,বুধবার রাতে বিধবা ফরিদার ছেলে ফরিদ উদ্দীন একই গ্রামের মৎস্য চাষীর পুকুর পাহাড়া দিতে চলে গেলে ফরিদা ও তার পুত্রবধু মিলে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পরে । এর পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে পুত্রবধু স্থানীয়রদের জানায় রাতে কে বা কাহারা তার শ্বাশুড়িকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করেছে । খবর পেয়ে থানাপুলিশ এবং পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বেলা ১১টা নাগাদ ফরিদার লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছেন। এঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিধবা ফরিদার পুত্র ফরিদ উদ্দীন (২৬),পুত্রবধু সাবিনা বিবি (২৩) ও একই গ্রামের মৃত মুনসান মোল্লার পুত্র হারুনুর রশিদ (৩৫) কে আটক করেছে পুলিশ। খবর পেয়ে ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গেলে সেখান থেকে কোন ছবি তুলতে দেয়নি । এমনকি হত্যার সীকার ফরিদার পুত্র-পুত্রবধুর সাথে কথা বলতেও দেয়নি থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান। ফলে তথ্য সংগ্রহ নিয়ে বিভ্রান্তিতে পরতে হয় সাংবাদিকদের। ওই গ্রামের মিজানুর রহমান (৪২) নামের একজন জানান, পরকিয়ার কারনে এই হত্যা কান্ড ঘটতে পারে। এব্যাপারে বিধবার একমাত্র মেয়ে শিল্পি আক্তার (২৮) জানান, সকালে তার শ্বশুড় বাড়ীতে খবর পৌছে যে তার মা খুব অসুস্থ্য,তাই তারা-তারি করে বাবার বাড়ীতে এসে দেখেন তার মা’কে কে বা কাহারা জবাই করে হত্যা করেছে । তিনি আরো জানান,মা,ভাই-ভাবী ও দু’বছরের এক ভাতিজিসহ ওই বাড়ীতে তারা বসবাস করতো। ভাই অন্যের বাড়ীতে কাজ করার কারনে মা-ভাবীই বাড়ীতে থাকত। বাড়ীর পশ্চিম পাশে একটি জানালা ভাঙ্গা রয়েছে বলেও জানান তিনি । তবে কে বা কাহারা এই নির্মম হত্যা কান্ড ঘটিয়েছে তা বলতে পারেননি।এব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি এএসএম সিদ্দিকুর রহমান সাংবাদিকদের তথ্য দিতে অনিহা প্রকাশ করলেও ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী নওগাঁ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রাশিদুল হক মোবাইল ফোনে জানান, হত্যা কান্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ জনকে আটক করা হয়েছে । কিন্তু,কেন -কি কারনে এই নির্মম হত্যাকান্ড তা পুরো-পুরি উদঘাটন করতে না পারলেও বেশ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে যা তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে বিষয়টি খুবই গুরুত্ব সহকারে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।#