মহেশপুরে প্রতারকের খপ্পরে পড়ে এক যুবক মালয়েশিয়ায় পাচারের শিকার

মহেশপুর(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার হুদো শ্রীরামপুর গ্রামের এক যুবক প্রতারকের খপ্পরে পড়ে পাচারের শিকার হয়ে এখন মালয়েশিয়ায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। ভিকটিম পরিবার মহেশপুর থানয় এজাহার দায়ের করেছে।

থানা ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার হুদো শ্রীরামপুর গ্রামের নুরুল আমিনের ছেলে সাইফুল ইসলাম(২৮) কে একই উপজেলার মানবপাচারকারী সিন্ডিকেটের সদস্য বেড়েরমাঠ গ্রামের আঃ মালেকের ছেলে রেজাউল ইসলাম তাকে অবৈধ পথে মালয়েশিয়া পাচার করে দেয়।
ভিকটিমের মা রিজিয়া পারভীন জানায়, গত ২৯/১২/১৬ইং তারিখে বিকালে রেজাউল ষ্ট্যাম্পের মাধ্যমে আমার বাড়ী থেকে ৩লক্ষ ৬০ হাজার টাকা গ্রহন করে আমার ছেলেকে নিয়ে যেয়ে অবৈধ পথে মালয়েশিয়ায় পাচার করে দিয়েছে। আমাদের দারিদ্রতার সুযোগ নিয়ে আমার ছেলেকে বিভিন্ন ধরণের প্রলোভন দেখিয়ে ভাল বেতন চাকুরী দেওয়ার লোভ দেখিয়ে বৈধভাবে মালয়েশিয়া নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে সে বাড়ী থেকে নিয়ে যায়। কিন্তু মালয়েশিয়া যাওয়ার পর ২ মাস আমার ছেলের কোন সন্ধান ছিল না। আমার ছেলেকে মালয়েশিয়ায় আটকে রেখে মানবপাচারকারী রেজাউল আমাকে নানা ধরেেণর ভয়ভীতি দেখিয়ে আমার কাছ থেকে পর্যায়ক্রমে আরো ১লক্ষ টাকা নিয়েছে। আমরা পরে জানতে পারলাম তাকে অবৈধপথে মালয়েশিয়ায় পাচার করে দেওয়া হয়েছে। সে এখন মালয়েশিয়ায় মানবেতর জীবন-যাপন করছে।
এ ব্যাপারে ভিকটিমের মা রিজিয়া পারভীন বাদী হয়ে ১৯/২/১৮ তারিখে মহেশপুর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন এবং তিনি মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সহযোগিতা কামনা করেছেন। মহেশপুর থানার ওসি লস্কর জায়াদুল হক জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে দালাল চক্রের হোতা রেজাউলের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।