আবারো প্রচার শুরু হয়েছে সুইটির ব’তে বন্ধু

নন্দিত অভিনেত্রী তানভীন সুইটির মনটা হঠাৎ করেই খারাপ হয়ে গেলো। কারণ তার প্রিয় একজন সহকর্মী ফেরদৌসী আহমেদ লিনা গেলো ১৮ এপ্রিল দিবাগত রাতে ইন্তেকাল করেছেন। করোনার এই সময়ে একজন প্রিয় সহকর্মীর এভাবে চলে যাওয়াটা শুধু সুইটিকেই ভীষণভাবে কষ্ট দিয়েছে তা নয়। লিনা’র দীর্ঘদিনের কর্মস্থল শিল্পকলা একাডেমির সহকর্মী, অভিনয় অঙ্গনের সবাইকেই অনেক কষ্ট দিয়েছে। কিছুদিন আগেই লিনা’র সঙ্গে বাংলাদেশ টেলিভিশনে একটি নাটকের কাজ করেন। কিন্তু সেই তিনি যে এতোটা অসুস্থ তা তাকে দেখে মনে হয়নি। তাই হঠাৎ লিনার চলে যাওয়াটা সুইটিকে প্রচন্ড আঘাত দিয়েছে। সুইটি বলেন,‘ দোয়া করি আল্লাহ যেন তাকে বেহেস্ত নসীব করেন।’ এদিকে ২০১৮’র পর আবারো তানভীন সুইটি অভিনীত যুবরাজ খান পরিচালিত ছোটদের কাছে ভীষণ জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক ‘ব’তে বন্ধু’ ধারাবাহিকটি আবারো দূরন্ত টিভিতে প্রচার শুরু হয়েছে। এই ধারাবাহিকে সুইটি খুউব গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। যেহেতু সারা দেশের মানুষই এখন বলা যায় ঘরবন্দী। তাই দূরন্ত টিভি আবারো সুইটি অভিনীত শিশুতোষ এই ধারাবাহিক নাটকটি প্রচার শুরু করেছে। ঘরে বসে থেকে শিশুরা যাতে ‘ব’তে বন্ধু’ নাটকটি দেখে আনন্দ পায় সেই কারণেই আবারো এই নাটকটির প্রচার শুরু হলো। প্রতিদিন দুপুর দুইটায় দূরন্ত টিভির পর্দায় নাটকটি প্রচার হয়। নাটকটির পুণ:প্রচার এবং নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে তানভীন সুইটি বলেন,‘ ব’তে বন্ধু নাটকটি যখন প্রথম প্রচার হয় তখনই অনেক সাড়া পেয়েছিলাম। বাচ্চাদের কাছে নাটকটি এতো জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলো যে, যেখানেই যেতাম এই নাটকের গল্প শুনতাম। সারা বিশ্ব এখন করোনা ভাইরাসের কারণে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি। এমন পরিস্থিতিতে সবাই আমরা ঘর বন্দী। ঘরে থেকে থেকে ছোট বড় সবাই আসলে এক ঘেয়ে হয়ে যাচ্ছেন। তারপরও এটাকে মেনে নিয়ে সুন্দর আগামীর জন্য আমাদেরকে ঘরেই নিরাপদে থাকতে হবে। ছোট ছোট বাচ্চাদের কথা চিন্তা করেই ব’তে বন্ধু ধারাবাহিকটির প্রচার আবারো শুরু হয়েছে। নতুন করে প্রচার শুরুর পর আবারো বেশ সাড়া পাচ্ছি আমি। ধন্যবাদ দূরন্ত কর্তৃপক্ষকে আবারো নাটকটির প্রচার শুরুর জন্য। দোয়া করি আল্লাহ আমাদের সবাইকে যেন এই ক্রান্তিকাল কাটিয়ে আবার সুন্দর জীবনে প্রবেশের সুযোগ করে দেন। করোনা ভাইরাসের এই সময়কালে কেউ যেন অমানবিক না হয়ে উঠেন, ধৈর্য্য ধরে বর্তমান পরিস্থিতিকে মোকাবেলা করে সুন্দর আগামীর জন্য অপেক্ষা করতে হবে। ইনশাআল্লাহ আমরা আবারো সুস্থ সুন্দর জীবনে ফিরে যাবো।’ তানভীন সুইটি অভিনীত একমাত্র সিনেমা আবু সাইয়ীদের ‘বাঁশি’।