গুরুত্বপূর্ণ সফরে ঢাকা আসছেন ট্রাম্পের উপদেষ্টা

নিউজ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক প্রধান উপদেষ্টা লিসা কার্টিস আজ ঢাকা আসছেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের উপসহকারী হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি ইউএস ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সিনিয়র পরিচালকের দায়িত্বেও রয়েছেন। বাংলাদেশসহ এই অঞ্চল বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের নীতিনির্ধারণী পদে রাজনৈতিক নিয়োগ প্রাপ্ত লিসা কার্টিসের এ সফরকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলছেন ঢাকার কর্মকর্তারা। লিসা কার্টিসের তিন দিনের এ সফরের মাধ্যমেই ট্রাম্প যুগের নতুন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের রাজনৈতিক যোগাযোগের আনুষ্ঠানিক সূচনা হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। সফরসূচি অনুসারে, আজ সন্ধ্যায় ঢাকা পৌঁছানোর পর আগামী রবিবার পর্যন্ত বাংলাদেশে অবস্থান করবেন লিসা কার্টিস। ঢাকায় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক এবং পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হকের সঙ্গে আলোচনা করবেন। আগামীকাল তিনি রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি সরেজমিন দেখতে কক্সবাজার যাবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, গত বছরের জানুয়ারিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার পর এপ্রিলে লিসা কার্টিসকে নিয়োগ দেন। সে হিসেবে এটাই হবে বাংলাদেশে ট্রাম্প প্রশাসনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সফর। তাই ঢাকার কর্মকর্তাদের প্রত্যাশা, বাংলাদেশ বিষয়ে ট্রাম্প প্রশাসন কী ধারণা পোষণ করছে সে বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যাবে লিসা কার্টিসের সফরে। কারণ দক্ষিণ এশিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রনীতি, গোয়েন্দা কর্মকাণ্ড ও জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়ে প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ দেওয়ার দায়িত্বে আছেন লিসা কার্টিস। তার ঢাকা সফরের সময় খুব স্বাভাবিকভাবেই রোহিঙ্গা সমস্যার বিষয়ে দুই দেশের সহযোগিতার প্রসঙ্গটি গুরুত্ব পাবে। এ ছাড়া দুই দেশের মধ্যে সন্ত্রাস ও নিরাপত্তা সহযোগিতা বাড়ানো, ট্রাম্প প্রশাসনের পরিকল্পিত ‘ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় কৌশলে’ বাংলাদেশের সক্রিয় অংশগ্রহণের বিষয়টিও গুরুত্ব পাবে বলে জানিয়েছে কূটনৈতিক সূত্রগুলো। জাতিসংঘ সহকারী মহাসচিব আসছেন আজ : জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সহকারী মহাসচিব এন্ড্রু গিলমার আজ বাংলাদেশ সফরে আসছেন। চার দিনের সফরে তিনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গিয়ে আশ্রিতদের অবস্থা সরেজমিন দেখবেন। ঢাকা পৌঁছে সরাসরি তিনি কক্সবাজারে চলে যাবেন। আগামী ৪ মার্চ ঢাকা ফিরে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানসহ সরকারি ও বেসরকারি বিভিন্ন কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করবেন। ৫ মার্চ ঢাকা ছাড়ার আগে গণমাধ্যমে বিবৃতি দেওয়ার কথা রয়েছে জাতিসংঘের এই পদস্থ কর্মকর্তার।