খালেদা জেলে থাকুক তা আমরা চাই না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আইনজীবী পরিবর্তনের জন্য দলটির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের দলীয় কার্যালয়ে আগামীকালের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভা সফল করার লক্ষ্যে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ আহ্বান জানান। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় আইনী প্রক্রিয়ায় জেলে গেছেন এবং আইনী প্রক্রিয়াতেই তাকে মুক্ত হতে হবে। খালেদা জিয়াকে সরকার জেলে পাঠায় নি। তিনি জেলে থাকুক তা আমরা চাই না। কারণ, জেলে থাকার কি কষ্ট তা আমরা জানি। তিনি মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের দলীয় কার্যালয়ে আগামীকালের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভা সফল করার লক্ষ্যে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

নাসিম বলেন, বিএনপি নেতা মওদুদ আহমেদ চান খালেদা জিয়া জেলে থাকুন। আর সেজন্যই তিনি বলেছেন, বেগম জিয়া জেলে থাকায় প্রতিদিন তার দশ লাখ করে ভোট বাড়ছে। খালেদা জিয়ার এভাবে ভোট বাড়তে থাকলে আগামী নির্বাচনে বিএনপি ভোট পাবে ৩০ কোটি। কিন্তু দেশে ভোটারের সংখ্যা নয় কোটি। আর আমাদের ভোট গেল কোথায়?

বিএনপির উদ্দেশ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, ‘আপনারা মওদুদ আহমেদের মত মতলববাজ আইনজীবী বদলান। ভাল আইনজীবী নেন। খালেদা জিয়া জেল থেকে বের হয়ে আসবেন।’ তিনি বলেন, আওয়ামী লীগে বিএনপিকে ছাড়া নির্বাচন করতে চায় না। গত জাতীয় নির্বাচনের সময় বিএনপিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ তাদের পছন্দ মত মন্ত্রণালয় দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা সে প্রস্তাব প্রত্যাখান করে নির্বাচন বানচালের মতো আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিল।

তিনি বলেন, আমরা সকল দলের অংশগ্রহণে একটি ভাল নির্বাচন করতে চাই। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল করতে চাই না। আমরা ভাল খেলে আগামী নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করে হ্যাট্রিক করতে চাই। দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে নাসিম বলেন, একটি দল দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকলে নানা ভুল-ত্রুটি হয়। এতে দলের জনপ্রিয়তা কমে। কিন্তু আমি গ্রামে গিয়ে দেখেছি গ্রামের মানুষ ভাল আছে। তারা সরকারের ওপর খুশি। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ গ্রামাঞ্চলে সবচেয়ে জনপ্রিয় দল। আর আওয়ামী লীগকে শহুরের মানুষের কাছে বিশেষ করে ঢাকার প্রতিটি ঘরে ঘরে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের যেতে হবে।

আগামীকালের ৭ মার্চের জনসভা সফল করার জন্য দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের জনসভা যত বড় হবে শত্রুদের হৃদকম্পন তত বাড়বে। ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ এমন একটি দিন যা আর কখনো জাতির ইতিহাসে আসবে না। বঙ্গবন্ধুর এ ভাষণ এ দেশের প্রতিটি মানুষকে শিহরিত করে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ।