তাড়াইলে কৃষকের ধান কেটে দিলেন কৃষক লীগ নেতাকর্মীরা

  • আমিনুল ইসলাম বাবুল, তাড়াইল

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে বোরো ধান পাকতে শুরু করেছে। কিন্তু লকডাউনের কারণে শ্রমিকের অভাবে ধান কাটতে পারছিলেন না এক প্রান্তিক কৃষক।

এমন সংবাদ পেয়ে জেলা কৃষক লীগের উদ্যোগে উপজেলা কৃষক লীগের সহযোগিতায় কৃষক লীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু কৃষকের বোরো ধান কেটে দিয়েছেন।

ধানকাটা শেষ হওয়া পর্যন্ত তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে হাওরে অবস্থান করেন। এ সময় স্থানীয় শ্রমিকদেরও ধান কাটায় আসতে উৎসাহিত করেন তিনি।

পাশাপাশি করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব রেখে অবস্থানসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত তাড়াইল উপজেলার জাওয়ার ইউনিয়নের দেওয়াটি এলাকার প্রান্তিক কৃষক আজিম উদ্দিনের ৬০ শতাংশ জমির ধান দনিয়ার হাওরে গিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে কেটে দেন কৃষক লীগ নেতাকর্মীরা।

এ কাজে অংশ নেন তাড়াইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মো. আজিজুল হক ভূঞা মোতাহার, জেলা কৃষক লীগের নেতা মোস্তাফিজুর রহমান কাঞ্চন, উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ইসলাম উদ্দিন ফয়সাল, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সরকার, ধলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক সাইফুল ইসলাম জুয়েল, কৃষক লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম ভূঞা, বুলবুল আহমেদ প্রমুখ।

কৃষক আজিম উদ্দিন বলেন, বোরো ধান আবাদে জমানো সব টাকা খরচ হয়ে গিয়েছিল। হাতে টাকা না থাকায় সংসার চালাতেও হিমশিম খাচ্ছিল। শ্রমিকের অভাবে ধানও কাটা সম্ভব হচ্ছিল না তাঁর।

এমন সময় কিশোরগঞ্জ জেলা কৃষক লীগ ও তাড়াইল উপজেলা কৃষক লীগ পরিবারের সদস্যরা তাঁর পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। এ জন্য তাঁদের অনেক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানান তিনি।

কিশোরগঞ্জ জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু বলেন, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে আমরা সবাইকে ঘরে থাকার অনুরোধ করছি। তবে, মানুষের সেবায় আমরা বাইরে থাকব। যখন যাঁর প্রয়োজন পড়বে, আমাদের জানালে আমরা তাঁকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করব- ইনশাল্লাহ।’

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কায় দেশব্যাপী লকডাউন ও সামাজিক দূরত্ব চলছে। এই অবস্থায় হাওরে ধানকাটার মওসুমে শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে।

এছাড়া হাওরে বন্যার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এতে উভয় সংকটে পড়েছেন হাওরের লাখো কৃষক।

এ কারণে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন এই দুর্যোগে হাওরের কৃষকের পক্ষে দাঁড়ানোর জন্য। তাই, দলীয় নেতাকর্মীসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনগুলো কিশোরগঞ্জের বিভিন্ন হাওরে স্বেচ্ছাশ্রমে কিছু কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে।

এছাড়া শিক্ষক, ছাত্রসহ বিভিন্ন পেশাজীবীরাও কৃষকের পক্ষে স্বেচ্ছায় হাওরে কাজ করছেন। প্রশাসনও আগামী ১৫ দিনের মধ্যে হাওরের ফসল কাটার আহ্বান জানিয়ে সবাইকে সম্মিলিতভাবে কৃষককে সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন।

Daily Amar bangladesh

Lorem Ipsum is simply dummy text of the printing and typesetting industry. Lorem Ipsum has been the industry's standard dummy text ever since the 1500s, when an unknown printer took a galley of type and scrambled it to make a type specimen book. It has survived not only five centuries