চিকিৎসকদের দায়িত্ব নিলো রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মেডিকেল কর্তৃপক্ষ

প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মরত অবস্থায় কোন চিকিৎসক অসুস্থ হলে বা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হলে তার চিকিৎসার দায়িত্ব হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নি‌বে ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন হাসপাতালের অধ্যক্ষ ও ট্রাস্ট্রি বোর্ডের সাধারণ সম্পাদক ও কিশোরগঞ্জ জেলা স্বাচিপের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ আ.ন.ম নৌশাদ খান।

মেডিকেলে কর্মরত চিকিৎসক ডাঃ সুষ্ময় সাহা ব‌লেন, কৃতজ্ঞতার সাথে বলছি এই হাসপাতালে যারা কর্মরত রয়েছি এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। এতে আমাদের মনোবল আরো বাড়বে বলে আমি মনে করি। উনার মতো সকল বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যদি এই দূর্যোগময় পরিস্থিতিতে চিকিৎসকদের পাশে দাঁড়ান তাহলে চিকিৎসকরা আরো উদ্যমে কাজ করতে পারতো।

 

তি‌নি আরও ব‌লেন, মহামারির সময় মহান মানুষরাই এভাবে এগিয়ে আসে। আর এমন ঘটনা বেসরকারী চিকিৎসা খাতে একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে আমি মনে করি।

কিশোরগঞ্জ জেলা‌কে ক‌রোনা আক্রা‌ন্ত‌ের হটস্পট ঘোষণা করা হলেও অত্র হাসপাতা‌লে সরকারের নির্দেশনা মেনে সকল কার্যক্রম চালু রয়েছে।
অধ্যাপক ডাঃ আ.ন.ম নৌশাদ খানের তত্ত্বাবধানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মেনে রোগীদের ২৪ ঘন্টা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন এখানকার চিকিৎসকরা৷

২০১৩ সালে কিশোরগঞ্জ জেলায় প্রতিষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত এবং বিএমডিসি অনুমোদিত একটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। প্রতিষ্ঠার পর থেকে অল্প সময়ে এলাকার মানুষের আস্থার প্রতীক হয়ে উঠেছে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটি।