কয়রা উপজেলা যুবমহিলা লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

কয়রা প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের কয়রা উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন মঙ্গলবার উপজেলা আওমীলীগ কার্যলয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা যুব মহিলা লীগের আহবাহক সুমাইয়া আমিন লতার সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় যুুব মহিলা লীগের সহ সভাপতি অধ্যক্ষ আফসানা হাসান ডেইজি। সম্মেলনের শুরুতে দলীয় পতাকা উত্তোলন করে আনুষ্ঠনিক ভাবে উদ্বোধন করেন খুলনা জেলা মহিলা লীগের সভাপতি এ্যডঃ সেলিনা আক্তার পিয়া। প্রধান বক্তা ছিলেন কয়রা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান জি,এম মোহসিন রেজা। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা আ’লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা কমান্ডার আলহাজ্ব এ্যাডঃ কেরামত আলী, কেন্দ্রীয় যুব মহিলালীগের সদস্য মির্জা রাফিয়া আক্তার, রূপসা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি এ্যাডঃ জেসমিন পারভীন (জলি), কয়রা উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক ঢালী আমিরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি ডাঃ ফজলুল হক ও মাষ্টার খগেন্দ্রনাথ মন্ডল। সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডঃ মোশাররফ হোসেন, বাহারুল ইসলাম ও জাফরুল ইসলাম পাড়, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওঃ লুৎফর রহমান, প্রচার সম্পাদক হারুন অর রশিদ, দপ্তর সম্পাদক সুজিত রায়, সাংস্কৃতিক সম্পাদক প্রভাষক শাহাবাজ আলী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক সিদ্দিক সানা। উপজেলা মহিলা আ’লীগের সভাপতি নীলিমা চক্রবর্তী, যুবলীগ নেতা ও ইউ.পি চেয়ারম্যান আব্দুল্যাহ আল-মামুন লাভলু সহ আ’লীগ নেতা জিয়াদ আলী সরদার, আঃ সামাদ গাজী, বাবু সমরেশ চন্দ্র সরকার, আঃ রশিদ, নির্মল দাস, ছাত্রলীগ নেতা মেসবাহ উদ্দীন মাছুম, রোকনুজ্জামান কাজল, ইখতিয়ার উদ্দীন হিরো,তরিকুল ইসলাম এবং বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেত্রীবৃন্দ। সম্মেলনে প্রধান অতিথি অধ্যক্ষ আফসানা হাসান ডেইজি বলেন আইলা দূর্গত অবহেলিত কয়রার নারীরা আজ যে ভাবে বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব দানকারী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের পতাকা তলে নেমে এসেছেন তাতে প্রমান করে বাংলার কোন নারী পিছিয়ে নেই। তিনি বলেন দেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী, কিন্তু ভোট কেন্দ্রে নারীদের উপস্থিতি কম দেখা যায়। যে কারণে আ’লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা নারীর সমাজকে এগিয়ে আসার জন্য যুব মহিলা লীগের সংগঠনকে জোরদার করার জন্য সারা দেশে যুব মহিলালীগ সম্মেলনের মাধ্যমে পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠন করা হচ্ছে। সম্মেলন শেষে সুমাইয়া আমিন লতাকে সভাপতি ও শিরিন সুলতানা (মিলি)কে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা কমিটি গঠন করা হয়েছে।