করোনায় আক্রান্ত পার হলো ২৫ লাখ, মৃত্যু ১ লাখ ৭৫ হাজার

নিউজ ডেস্ক

করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যায় অনেক দেশই বলছে নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হচ্ছে। কিন্তু আসলেই কি সেটা সত্যি? পরিসংখ্যান তা কিন্তু বলছে না। হুহু করেই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এরই মধ্যে বিশ্বব্যাপি মোট আক্রান্তের সংখ্যা পার হয়ে গেছে ২৫ লাখ। মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৭৫ হাজারেরও বেশি মানুষের।

প্রতিদিনই মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে অন্তত ৫ থেকে ৬ হাজার মানুষের নাম। আক্রান্তের তালিকায় যোগ হচ্ছে কম করে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বব্যাপি মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতি এই ভাইরাসে এরই মধ্যে জর্জরিত ২১০টি দেশ ও অঞ্চল।

প্রতি মুহূর্তেই আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ২৫ লাখ ৩২ হাজার ৪৯০জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছে মোট ১ লাখ ৭৫ হাজার ৪১২ জন। সুস্থ হয়েছে ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৬০১ জন।

গত বছর ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে চীনের উহানে প্রথম সনাক্ত হয় করোনাভাইরাসের। এরপর প্রায় চার মাসের বেশি সময় পার হতে চললো। আক্রান্ত প্রতিনিয়তই গাণিতিক হারে বাড়তেছে। একটি-দুটি দেশ করে ভাইরাসটি পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। যার কারণে সারা পৃথিবীই এখন ঘরবন্দি (লকডাউন)।

বাংলাদেশেও এই ভাইরাসের ঢেউ আছড়ে পড়েছে। এখনও পর্যন্ত সরকারি হিসেবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩৮২ জন। মৃতের সংখ্যা ১১০ জন। সুস্থ হয়েছে মাত্র ৮৭ জন।

বিশ্বব্যাপি করোনায় সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত দেশ হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে (৮ লাখ ৩৫৭৫ জন)। মৃত্যুও বেশি হয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিধর দেশটিতে। মোট ৪৩ হাজার ৬৬৩জন। যুক্তরাষ্ট্রের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত স্পেনে। মোট ২ লাখ ৪ হাজার ১৭৮ জন আক্রান্ত দেশটিতে। মৃত্যু বরণ করেছে ২১ হাজার ২৮২ জন।

তবে মৃতের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইতালি। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ২৪ হাজার ৬৪৮জনের। আক্রান্তের সংখ্যা হচ্ছে ১ লাখ ৮৩ হাজার ৯৫৭জন। ফ্রান্সে আক্রান্ত ১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৮৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ৭৯৬ জনের। জার্মানিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৪৮ হাজার ২৪ জন। সে তুলনায় দেশটিতে মৃত্যু কম। মাত্র ৪৯৪৮জন।

যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা হচ্ছে ১২৯ হাজার ৪৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৭ হাজার ৩৩৭ জনের। তুরস্কে আক্রান্তের সংখ্যা ৯৫ হাজার ৫৯১জন। মৃ্ত্যু হয়েছে ২২৫৯জন। ইরানে আক্রান্ত ৮৪ হাজার ৮০২ জন। মৃত্যু ৫২৯৭ জনের। চীনে আক্রান্ত হয়েছে মোট ৮২ হাজার ৭৫৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৬৩২ জন।

এছাড়া রাশিয়াতে আক্রান্ত ৫২ হাজার ৭৬৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৫৬ জনের। বেলজিয়ামে মৃত্যু হয়েছে ৫৯৯৮ জনের। আক্রান্ত ৪০ হাজার ৯৫৬ জন। ব্রাজিলে মৃত্যু ২৫৮৮ জন। আক্রান্ত ৪০ হাজার ৮১৪জন। নেদারল্যান্ডসে মৃত্যু ৩৯১৬জন। আক্রান্ত ৩৪ হাজার ১৩৪ জন।

Daily Amar bangladesh

Lorem Ipsum is simply dummy text of the printing and typesetting industry. Lorem Ipsum has been the industry's standard dummy text ever since the 1500s, when an unknown printer took a galley of type and scrambled it to make a type specimen book. It has survived not only five centuries