ডিপজলের শুটিং ফ্লোর এখন ত্রাণের গুদাম, চলছে রোজার প্রস্তুতি

করোনাভাইরাসের প্রকোপে টালমাটাল বিশ্ব। বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। জীবন বাঁচাতে ঘরে অবস্থান করছেন বেশিরভাগ মানুষ। দেশে দেশে চলছে লকডাউন। বাংলাদেশও করোনার প্রভাব থেকে মুক্ত নয়। এতে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। কাজ নেই তো ভাত নেই অবস্থা!

এরই মধ্যে প্রায় এক হাজার পরিবারকে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিতরণ করেছেন জনপ্রিয় অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। সাভারের রাজফুলবাড়িয়া এলাকায় নিজ শুটিং বাড়ি ডিপু ভিলায় এক হাজার পরিবারকে ত্রাণসামগ্রী তুলে দেন তিনি। এ ছাড়া দুস্থ শিল্পীদের জন্য তিনি বিএফডিসির শিল্পী সমিতিতে ত্রাণ দিয়েছেন।

ডিপু ভিলায় শুটিংয়ের জন্য রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ভবন, রয়েছে বাগানসহ শুটিংয়ের উপযুক্ত কিছু লোকেশন। সেট নির্মাণ করার জন্য বিশাল ফ্লোর রয়েছে। সেই শুটিং ফ্লোর করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই পরিণত হয়েছে ত্রাণের গুদামে।

আসছে রমজান, এ সময় অসচ্ছল মানুষের জন্য নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। নিজে দিচ্ছেন, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে সমাজের অসহায় ও দুস্থদের সাহায্যের জন্য বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

এনটিভি অনলাইনকে ডিপজল বলেন, ‘রমজানের সময় তো সবাই নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী দান করে থাকেন। তবে এবারের রোজাটা একটু ভিন্ন। কারণ এই রোজায় মানুষ বড় অসহায়। কারণ কারও কোনো কাজ নেই, তাই দিনমজুরের খরে খাবার নেই। ঠিক আছে, রোজায় সবাই সারাদিন উপোস করবে, তবে রোজা রাখার জন্য তো খাবার চাই। ইফতার করার জন্যও তো কিছু খাবার চাই। তাই সবাইকে বলব, আপনারা নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী এগিয়ে আসুন।’