কিশোরগঞ্জ চক্ষু হাসপাতালের ১৮ বছর পূর্তিতে বিনামূল্যে চক্ষু সেবা পেল চার শতাধিক রোগী

শারিফুল ইসলাম, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক।

কিশোরগঞ্জ চক্ষু হাসপাতালের ১৮ বছর পূর্তি উদযাপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৪ মে) কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার লতিবাবাদ এলাকায় হাসপাতাল কম্পাউন্ডে প্রায় চার শতাধিক রোগীকে বিনামূল্যে চক্ষু সেবার মাধ্যমে ১৮ বছর পূর্তি উদযাপন করা হয়।

জানা গেছে, নারী উদ্যোগ কেন্দ্র (নউক) এর সহায়তায় ২০০৬ সালে কিশোরগঞ্জ চক্ষু হাসপাতাল প্রতিষ্ঠাতার পর থেকে কিশোরগঞ্জ জেলাসহ পার্শ্ববর্তী জেলার সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের উন্নত চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান ও নিরাময়যোগ্য অন্ধত্ব নিবারনে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়াও হাসপাতালটি চক্ষু রোগীদের বিভিন্ন মানবিক সেবা দিয়ে সুনামের সঙ্গে কাজ করে আসছে। ১৮ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বিকেলে ৩টা পর্যন্ত চলে এই বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা। সেই সাথে ডায়াবেটিস ও ডায়াবেটিস রেটিনোপ্যাথি রোগীদের বিনামূল্যে সেবা দেওয়া হয়। এছাড়াও চোখের ছানি রোগীদের বিনামূল্যে অপারেশনের সুযোগ প্রদান করা হয়।

দিনশেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে হাসপাতালের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে কেক কেটে ১৮ বছর পূর্তি উদযাপন করেন নারী উদ্যোগ কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক মাশহুদা খাতুন শেফালী। এছাড়াও অনুষ্ঠানে কিশোরগঞ্জ চক্ষু হাসপাতালের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. মাহবুবা খন্দকার ছাড়াও হাসপাতালে বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক আমার বাংলাদেশ

দৈনিক আমার বাংলাদেশ