হৃদয়ে আজও বাজে গিটারের জাদুকরের সুর

বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের ইতিহাস খুব পুরোনো- এমনটা নয়। তবে বাংলা গানের ভাণ্ডারে ব্যান্ড সংগীত অনন্য স্থান দখল করে আছে। দেশের যে কজন ব্যান্ড শিল্পী রক ঘরানার সংগীতে বাংলা গানের জগতকে সমৃদ্ধ করেছেন তাদের মধ্যে ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চু অন্যতম।

আইয়ুব বাচ্চু শুধু ব্যান্ডের গান পরিবেশন করে জনপ্রিয়তা পাননি, তিনি গিটার বাদনে এমন পারদর্শিতা দেখিয়েছেন, ফলে তিনি ‘গিটারের জাদুকর’ তকমা লাভ করেছিলেন। ব্যান্ডের গান ও গিটার বাদনে তিনি শুধু শ্রোতাপ্রিয়তা-ই লাভ করেননি, পৌঁছেছিলেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ব্যান্ডে গান তথা রক গানের ইতিহাসে দেখা যায়, এ ঘরানার গান শুধু তরুণরাই পছন্দ করে। কিন্তু বাংলাদেশের এই রক স্টার শুধু তরুণ প্রজন্মের-ই নয়, দেশের সবশ্রেণি ও সব বয়সী সংগীত পিপাসুদের অন্তর জয় করেছিলেন।
দেশের তুমুল জনপ্রিয় ও কিংবদন্তি ব্যান্ড তারকার আজ (১৬ আগস্ট) জন্মদিন। জন্মদিনে তার স্মৃতির প্রতি রইলো গভীর শ্রদ্ধা। মহান এ শিল্পীকে আজ তার অসংখ্য ভক্ত-অনুরাগীরা পরম ভালোবাসা ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করছেন।

ব্যান্ডের গান গেয়ে গিটারের জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর তার কালকে জয় করেছিলেন। তার কণ্ঠের অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে অধিকাংশই কালজয়ী হয়েছে। এসব কালজয়ী গানের মধ্যে রয়েছে, ‘এখন অনেক রাত’, ‘মেয়ে’, ‘কেউ সুখী নয়’, ‘হাসতে দেখো গাইতে দেখো’, ‘সেই তুমি’, ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি’, ‘এক আকাশের তারা’, ‘ঘুমন্ত শহরে’, ‘রুপালি গিটার’, ‘উড়াল দেবো আকাশে’, ‘একচালা টিনের ঘর’, ‘তারাভরা রাতে’, ‘বাংলাদেশ’, ‘বেলা শেষে ফিরে এসে’, ‘আমি তো প্রেমে পড়িনি’, ‘ফেরারি মন’ ইত্যাদি।

আইয়ুব বাচ্চুর জনপ্রিয় অ্যালবামের মধ্যে রয়েছে, ভাটির টানে মাটির গানে, জীবন, রিমঝিম বৃষ্টি, বলিনি কখনো, জীবনের গল্প, রক্তগোলাপ, ময়না, কষ্ট, সময়, একা, প্রেম তুমি কি!, দুটি মন, কাফেলা, প্রেম প্রেমের মতো ও পথের গান। নিজের একক অ্যালবাম ছাড়াও আইয়ুব বাচ্চু অসংখ্য মিক্সড অ্যালবামে গান গেয়েছেন।

দেখা গেছে ব্যান্ডের গানের শিল্পীরা সাধারণত সিনেমার গান করেন না। কিন্তু আইয়ুব বাচ্চু সেই ধারণা ভেঙে দিয়ে সিনেমার গানে প্লেব্যাক করে ব্যাপক শ্রোতানন্দিত হন।

আইয়ুব বাচ্চুর কণ্ঠের জনপ্রিয় সিনেমার গানের মধ্যে রয়েছে, আম্মাজান, অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে, কবিতায় লিখেছি/ ছবিতে এঁকেছি, এই জগতও সংসারে তুমি এমনই একজন, আরও আগে তুমি কেন এলে না, কী খেলা খেলিছো তুমি, আকাশ ছুঁয়েছে মাটিকেসহ অনেক গান।

গানের জগতে আইয়ুব বাচ্চুর যাত্রা শুরু হয় ফিলিংস ব্যান্ডের সাথে। সেই ১৯৭৮ সালে। হারানো বিকেলের গল্প শিরোনামের একটি গানে তিনি প্রথম কণ্ঠ দেন। যার কথা লিখেছিলেন শহীদ মাহমুদ জঙ্গী।

এরপর ১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত তিনি সোলস ব্যান্ডের সাথে যুক্ত ছিলেন। ১৯৮৬ সালে প্রকাশিত হয় আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম একক অ্যালবাম রক্ত গোলাপ। তবে ১৯৮৮ সালে ময়না অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি জনপ্রিয়তা লাভ করেন।

১৯৯১ সালে আইয়ুব বাচ্চু এলআরবি ব্যান্ড গঠন করেন। এই ব্যান্ড থেকেই ১৯৯২ সালের প্রকাশিত হয় তার প্রথম ব্যান্ড অ্যালবাম। যার শেষ চিঠি কেমন এমন চিঠি, ঘুম ভাঙ্গা শহরে, হকার গানগুলো জনপ্রিয়তা লাভ করে।

আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর তিনি পরলোক গমন করেন। বাংলা ব্যান্ড সংগীতে অসামান্য অবদান রাখার জন্য তিনি অন্তকাল সংগীতপ্রেমীদের মাঝে বেঁচে থাকবেন।

Credit:Jago news24